সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ১২:৩৫ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ

৬ ডিবি পুলিশের স্বর্ণ ডাকাতি মামলা ৪ দিনের রিমান্ডে

রিপোটারের নাম / ৪৭ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২০ আগস্ট, ২০২১

৬ ডিবি পুলিশের স্বর্ণ ডাকাতি
ওসি সাইফুল ৪ দিনের রিমান্ডে, মামলা হস্তান্তর পিবিআইতে

২০টি স্বর্ণবার ডাকাতির ঘটনায় পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) ওসি সাইফুল ইসলামের ফের ৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত। চট্টগ্রামের এক স্বর্ণ ব্যবসায়ীর কাছ থেকে এ স্বর্ণবার ছিনিয়ে নেয়ার পর আদালতে মামলা করলে তাদের আটক করে পুলিশ। গতকাল রোববার বিকেলে ফেনীর বিজ্ঞ-সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কামরুল ইসলাম ৬ জনকে ৪ দিন করে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের আদেশ দেন।

এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মো. মনির হোসেন রিমান্ডের সত্যতা নিশ্চিত করে তিনি প্রতিবেদককে বলেন, তিনি আদালতে ৭দিন করে রিমান্ড আবেদন চেয়েছিলেন। পরে বিজ্ঞ-আদালত ৪দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন। ইতিপূর্বে ৪ দিনের রিমান্ডে ছিলেন।

ফেনী মডেল থানার তদন্তকারী কর্মকর্তা মো. মনির হোসেন মামলার কাগজপত্র পিবিআইকে হস্তান্তর করেন। জানা যায়, মামলাটি সূষ্ঠ্যু বিচারের জন্য পুলিশ ব্যুরো ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)র কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

মামলাটি তদন্ত করছেন পিবিআইয়ের তদন্তকারী কর্মকর্তা মো. শাহ আলম, তিনি বলেন, ‘এখন থেকে এই মামলাটি পিবিআই তদন্ত করবে। মামলা সংক্রান্ত সকল তথ্য-উপাত্ত আমরা বুঝে নিয়েছি। এই মামলার গ্রেপ্তারকৃত ওসি সাইফুল ইসলাম ও উপপরিদর্শক (এসআই) মোতাহের হোসেন, মিজানুর রহমান ও নুরুল হক এবং সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) অভিজিত বড়ুয়া ও মাসুদ রানা জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আমাদের (পিবিআই) হেফাজতে থাকবে।’ ওসি ছাড়া ৫ কর্মকর্তার দ্বিতীয় বারের ৩দিনের রিমান্ড চলছে বলেও জানান তিনি।

উল্লেখ্য, গত ৮ আগস্ট বিকেলে চট্টগ্রাম থেকে ঢাকায় যাচ্ছিলেন স্বর্ণ ব্যবসায়ী গোপাল কান্তি দাস। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ফেনীর ফতেহপুর রেলক্রসিং এলাকায় পৌঁছালে ডিবির ওই সদস্যরা তার গাড়ি থামান। ওই সময় তার কাছে থাকা ২০টি স্বর্ণবার নিয়ে যান বলে অভিযোগ করেন।
সে সময়কার তদন্ত করে অভিযোগের সত্যতা পেলে। প্রথমে পুলিশ চারজনকে আটক করে। তাদের জবানবন্দি অনুযায়ী আরও দুজনকে আটক করা হয়। ডিবির ওসি সাইফুল ইসলামের কাছ থেকে ১৫টি বার উদ্ধার করা হয়। এর র গত ১০ আগস্ট রাতে গোপাল কান্তি দাস তাদের নামে ফেনী মডেল থানায় মামলা করেন। মামলায় তাদের গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

এদিকে অভিযুক্ত সেই ৬ পুলিশ কর্মকর্তাকে চাকুরী থেকে অব্যাহত করা হয়েছে। ফেনীর পুলিশ সুপার (এসপি) খোন্দকার নুরুন্নবী বিষয়টি নিশ্চিত করেন। গত ১১ আগস্ট ওসি সাইফুল ইসলামের চার দিন ও বাকিদের তিন দিন করে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের আদেশ দেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ