বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২, ০১:১৪ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ

রানু মণ্ডলের অবস্থা নাজুক, জোটে না দু’বেলা খাবার

রিপোটারের নাম / ৫১ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : বুধবার, ১১ মে, ২০২২

বিনোদন ডেস্ক  মে ১০, ২০২২,

রানাঘাট স্টেশনের ভবঘুরে থেকে ভাইরাল হয়েছিলেন রানু মণ্ডল। সেই থেকেই রাতারাতি সোশ্যাল মিডিয়া সেনসেশন হয়ে উঠেন এই গায়িকা। এরপর উড়ে যান মুম্বাই, সুযোগ পান বলিউডের সিনেমায় গাওয়ার! তবে সেই ক্যারিয়ার ছিলো অল্প সময়ের জন্য!

ভাগ্যের পরিহাসে আগের অবস্থায় ফিরে গেছেন রানু। বর্তমানে অবস্থা এতোটাই নাজুক, দু’বেলা নাকি তার খাবারও জোটে না! এমনটাই বলছে হিন্দুস্তান টাইমস বাংলার এক প্রতিবেদন।

নিজের মুখেই নাকি নিজের কষ্টের কথা স্বীকার করেছেন রানু মণ্ডল। জানিয়েছেন,‘সবাই নিজের লাইক বাড়াতে আসে, কেউ খাবার আনে না।’

প্রতিদিনই এখনও রানু মণ্ডলকে কোনও না কোনও ইউটিউবারের চ্যানেলে দেখা যায়। তবে সেখানে তাকে দিয়ে গান গাওয়ানো, নাচ করানোর থেকে ‘ভাঁড়ামো’ বেশি হয় বলে মন্তব্য নেটিজেনদের।

এ বিষয়ে রানু জানান, ‘কেউ একটু খাবার আনে না। শুধু লাইক পাওয়ার আশায় ভিডিও করে। খিদেয় পেট তো চোঁ চোঁ করলে গলা দিয়ে আওয়াজ বেরুবে কী করে।’

রানু মনে করেন, স্টেশনে স্টেশনে কাটানো আগের জীবনই ভালো ছিলো। এখন আগের মত স্টেশনের সামনে বাটি হাতেও বসতে পারেন না! বাড়ির বাইরে পা রাখলেও অনুরোধ ভেসে আসে ‘একটা গান শোনান না’। কিন্তু খাবার দেয় না কেউ। লিকার চা-বিস্কুট খেয়ে সকালে পেট ভরান। দুপুরে ৫টাকার সেদ্ধ চাউমিন জোটে কোনও না কোনও দিন। আর রাতে বেশিরভাগ সময়তেই ঘুমোতে যেতে হয় খালি পেটে!

পশ্চিমবঙ্গের স্টেশনে স্টেশনে থাকতেন রানু। পথে পথে ঘুরে বেড়ানোই ছিলো তার কাজ। লোকজন তাকে ‘পাগলি’ নামে ডাকতো। এই নারীই হঠাৎ করে ইন্টারনেটে আলোড়ন তৈরি করেন ২০১৯ সালে। ফিরে পান পরিবার। মুম্বাইতে ডাক পান। বলিউডের ছবিতেও গান করেন। এমনকি তাকে নিয়ে চলচ্চিত্র নির্মাণের কথাও সেসময় শোনা যায়।

‘বার্পেতা টাউন দ্য প্লেস অব পিস’ নামের এক ফেসবুক পেজের একটি ভিডিওর মাধ্যমে ছড়িয়ে যায় রানুর কণ্ঠ। ২০১৯ সালে প্রকাশিত সেই ভিডিওটিতে দেখা যায় রানু মণ্ডল লতা মঙ্গেশকরের গান গাইছেন।

মিষ্টি এবং সুরেলা কণ্ঠে গাওয়া সেই গান মুহূর্তেই ভাইরাল হয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়। মুগ্ধ শ্রোতারা রানুর প্রশংসা করে শেয়ার করতে থাকে ভিডিওটি। গানের সূত্র ধরেই এই গাগলি রানুকে খুঁজে পায় তার মেয়ে। যাকে বহুদিন আগে হারিয়ে ফেলেছিলেন তিনি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ