শনিবার, ০২ জুলাই ২০২২, ০৫:৫৪ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
চুমকি আপার পক্ষে নেত্রকোনায় ত্রান বিতরন পদ্মা সেতু উদ্ভাধন উপলক্ষে কালীগঞ্জে বিজয় র‌্যালী কালীগঞ্জে সেলাই মেশিন , কৃষকের মাঝে সার ও যুব উন্নয়নের ঋণ বিতরণ দেলদুয়ারে বিনামুল্যে সার বীজ বিতরণ কালীগঞ্জে পরিত্যক্ত ঘর থেকে যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার আ’লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে শ্যামনগরে শোভাযাত্রায় ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত ছেলে ও ছেলে বৌয়ের বিরুদ্ধে বাবা মা কে মারধোর অভিযোগ থানায় মামলা যান্ত্রিক এবং মানবিক ক্রুটি দূর করতে পারলে ইভিএম গ্রহণযোগ্য হবে কালীগঞ্জে সমন্বিত পরিকল্পনা প্রনয়ণ বিষয়ক কর্মশালা কালীগঞ্জে নারী উদ্যোক্তা প্রশিক্ষণার্থীদের মাঝে ভাতা বিতরণ 

বন্ধ হচ্ছেনা ফ্রি ফায়ার ও পাবজি

রিপোটারের নাম / ৭৩ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : সোমবার, ৩১ মে, ২০২১

বন্ধ হচ্ছেনা ফ্রি ফায়ার ও পাবজি

গত ২৬ মে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে বাংলাদেশ মুঠোফোন গ্রাহক অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মহিউদ্দিন আহমেদ ফ্রি ফায়ার ও পাবজি গেম দুটি নিয়ন্ত্রনের দাবি জানিয়েছিলেন। তিনি বলেন, সরকার যখন সহজলভ্য দ্রæতগতির ইন্টারনেট প্রাপ্তির জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে, ঠিক তখন আগামী তরুন প্রজন্ম প্রযুক্তির অপব্যবহার করে বিপথগামী হচ্ছে, যা সবাইকে ভাবিয়ে তুলেছে। এজন্য গেম দুটি নিয়ন্ত্রণ চায় সংগঠনটি।
পরে প্রতিবাদের ঝড় ওঠে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।
এ বিষয়ে টেলি যোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার বলেন, ফ্রি ফায়ার ও পাবজি গেম বন্ধের প্রচুর দাবি উঠেছে। পাশা পাশি চালু রাখারও দাবি উঠেছে শেষে সাফ জানিয়ে দিলেন, ইন্টারনেটের জগতে কিছুই বন্ধ করা যায় না। পাশাপাশি তিনি আরো বলেন, আমি কোন দাবিটা শুনব? আমি আজকে বন্ধ করে দেব, কিন্তু ভিপিএন (ভার্চুয়েল প্রাইভেট নেটওয়ার্ক) বন্ধ করবে কে? আমরা একবার ফেসবুক বন্ধ করে দেখেছি, কিন্তু সারা দেশে ভিপিএন এরমাধ্যমে ফেসবুক চলেছে।’
সম্প্রতি শনিবার একটি সংবাদ মাধ্যমকে ফ্রি ফায়ার ও পাবজি সংক্রান্ত এসব কথা বলেছেন।
অনেক ছেলেমেয়ে ফ্রি ফায়ার ও পাবজিরে আসক্ত হয়ে পড়েছে। তাদের কাছ থেকে মোবাইল ফোন ভিন্ন রাস্তা অবলম্চবন করে ফলে হিতে বিপরীত হয়। তবে এই গেম কীভাবে বন্ধ করা যায এমন প্রশ্নের জবাবে মোস্তয়া জব্বার বলেন, তিনি উল্টো প্রতিবেদককে বলে উঠেন তাদেও নিয়ন্ত্রন করতে পারেননা এটা কেন? এট অদক্ষতা আপনাদের। প্যারেন্টাল কন্ট্রোল আছে সেটা ইউজ করেন।’
তবে তিনি স্বীকার করে আরও বলেন, ‘ইন্টারনেটের জগতে কিছুই বন্ধ করা যায় না। মাথা ব্যথার জন্য মাথা কেটে ফেলা এটা কোনো সমাধান না। কতটুকু গেম খেলা উচিত, কতটুকু আড্ডা দেয়া উচিত, কতটুকু বাইরে যাওয়া উচিত, কতটুকু ঘরে থাকা উচিত; আপনি যদি আপনার সন্তানকে এটুকু বোঝাতো) করতে না পারেন, এটা আপনার ব্যর্থতা , আমার কাছে মনে হয় বন্ধ করাটা সমাধান না। আমি এই বিষয়টিতে একমত হতে পারি না। আমাদের এখানকার অভিভাবকরা সেই পরিমাণ যোগ্যতাসম্পন্ন নয়, আর এ কারণে ছেলেমেয়েরা নষ্ট হয়। তাহলেকি ফ্রি ফায়ার ও পাবজি খেলে ছেলে মেয়েরা নষ্ট হয়েগেছে ?
ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার বলেন, ‘উল্টাপাল্টা চিন্তা করার চাইতে ছেলেমেয়েদের বড় হতে দিন। আমাদের মাননীয় তথ্যপ্রযুক্তি উপদেষ্টা (সজীব ওয়াজেদ জয়) বন্ধ করাকে কখনোই সমাধান মনে করেন না। এর আগে একবার ফেসবুক বন্ধ করা হয়েছিল, তিনি নির্দেশ দিয়েছিলেন এটা না করার জন্য।
(আপনারা আপনাদের মতামত আমার কমান্টে লিখতে পারেন, তাছাড়া সময় টিভির জরিপের লিংক দেয়া আছে এতে অংশগ্রহন কও আপনার মতামত দিন)


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ