সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ১২:৩৯ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ

গ্রাম পুলিশ এর বিরুদ্ধে বাল্য বিয়ের অনুমতির অভিযোগ

রিপোটারের নাম / ৫০ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ১ জুলাই, ২০২১

গ্রাম পুলিশ এর বিরুদ্ধে বাল্য বিয়ের অনুমতির অভিযোগ

বগুড়া প্রতিনিধি :
এবার গ্রাম পুরিশের বিরুদ্ধে টাকার বিনিময়ে ষষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রীর বাল্য বিয়ে দেয়ার অনুমতি দেয়া হলো বলে অভিযোগ পাওয়াগেছে।
জানা যায়, বগুড়ার শেরপুরে ৬ষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রীর বিয়ের অনুষ্ঠানে বাল্য বিয়ের অপরাধে ঘুষ দাবি করেন এক গ্রাম পুলিশ। পরে বিয়ের স্বার্থে তাকে টাকা দিয়ে অপ্রাপ্তবয়স্ক মেয়েকে বিয়ে দেন স্কুলছাত্রীর বাবা। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার ভবানীপুর ইউনিয়নের বিশা পশ্চিম পাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ভবানীপুর ইউনিয়নের বিশা পশ্চিম পাড়া গ্রামের আইয়ুব আলী তার ষষ্ঠ শ্রেণির মেয়ের বিয়ের আয়োজন করেন আজ। এ সময় ওই ইউনিয়নের গ্রাম পুলিশ মো. মোলা বক্স খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে হাজির হন। তিনি বিয়ে বন্ধ করার চেষ্টা করেন। একপর্যায়ে তিনি টাকা দাবি করেন। পরে স্কুলছাত্রীর বাবা মেয়ের বিয়ের স্বার্থে ১ হাজার ৫০০ টাকা ওই গ্রাম পুলিশকে দেন।

স্কুলছাত্রীর বাবা আইয়ুব আলী বলেন, ‘আমার মেয়ে ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ে। করোনার জন্য দুই বছর স্কুলে যাচ্ছে না। ভালো পাত্র পেয়ে বিয়ের সিদ্ধান্ত হয়। গ্রাম পুলিশ মোলা বক্স আমার বাড়িতে এসে বিয়ে বন্ধ করতে বলে। পরে তাকে ১ হাজার ৫০০ টাকা দেওয়ার পর সে চলে যায়।’
এ বিষয়ে গ্রাম পুলিশ মো. মোলা বক্স বলেন, ‘আমাকে শফিক স্যার বিয়ে বন্ধ করতে বলেছে। তাই আমি বিয়ে বাড়িতে গিয়ে দেখি, বিয়ের কোনো আয়োজনই নেই।’ ভবানীপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘যদি গ্রাম পুলিশ বাল্য বিয়ের ব্যাপারে কোনো টাকা নিয়ে থাকে, তাহলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’
বিষয়টি শেরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, ‘সংশ্লিষ্ট ওই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এবং উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সমাজ সেবা অফিসারকে বিষয়টি জানিয়েছনে।’


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ