সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ০৭:১২ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ

কালীগঞ্জে ৬ষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থী গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা

রিপোটারের নাম / ৫৬ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : রবিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২২

কালীগঞ্জে ৬ষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থী গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা

কালীগঞ্জ(গাজীপুর)প্রতিনিধি :

কালীগঞ্জের জাঙ্গালিয়া এলাকায় মায়ের সঙ্গে অভিমান করে ৬ষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রী গলায় ওড়না পেঁচিয়ে গাছের সঙ্গে ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করার সংবাদ পাওয়াগেছে। মৃত শিক্ষার্থীর নাম খাদিজা আক্তার (১১),সে জাঙ্গালিয়া ইউনিয়নের দেওতলা গ্রামের আওলাদ শেখের মেয়ে এবং নরুন উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থী।
গতকাল রবিবার বিকেলে জাঙ্গালিয়া ইউনিয়নের দেওতলা এলাকায় ঘটনাটি ঘটেছে। স্থানীয়রা থানায় খবর দিলে কালীগঞ্জ থানার এসআই আমিনুল ইসলাম ওই রাতে মৃতদেহটি উদ্ধার করে।
এ বিষয়ে জাঙ্গালিয়া ইউনিয়ন পরিষদের ৯নং ওয়ার্ডের সদস্য গোলাম মোস্তফা আখন্দ বলেন, খাদিজা আক্তার দুপুরে খাবার পর তার মায়ের কাছ থেকে টাচ মোবাইল ফোনটি চেয়েছিল। তার মা মোবাইল ফোন না দিলে পাশের বাড়িতে খেলতে যাওয়ার জন্য বায়না ধরে। এবারও তার মা বারণ করে ঘড়ে শুয়ে থাকতে বলে। তার মা ঘুমিয়েগেলে সেই ফাঁকে খাদিজা অভিমান বাড়ির বাহিরে আমগাছ তলায় বসে কাঁদে এবং তার কাছে থাকা ওড়না দিয়ে গলায় পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে। বিকেল তার মা ঘুমথেকে উঠে আশে পাশে খোজা খুজি করতে থাকে এক পর্যায় আমগাছের ডালার সাথে খাদিজার দেহটি ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পেয়ে চিৎকার করলে প্রতিবেশীরা দৌড়ে এসে খাদিজাকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পায়। পরে তারা কালিগঞ্জ থানায় খবর দিলে এসআই আমিনুল ঘটনাস্থলে গিয়ে ঝুলন্ত অবস্থা থেকে মৃত দেহটিউদ্ধার করে প্রাথমিক সুরতহাল রিপোর্ট করে ময়না তদন্তের জন্য মৃত দেহটি গাজীপুর মর্গে পাঠানো হয়।

এ বিষয়ে কালীগঞ্জ থানা উপপরিদর্শক (এসআই) আমিনুল ইসলাম বলেন, রাত ৮টার দিকে ঘটনাস্থল থেকে খাদিজা আক্তারের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে মায়ের সঙ্গে অভিমান করে সে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে। এ বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের প্রস্তুতি চলছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ