সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ০৫:৫০ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ

কালীগঞ্জে নামজারি ও জমি সমস্য সংক্রান্ত গণশুনানি

রিপোটারের নাম / ৭৮ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

কালীগঞ্জে নামজারি ও জমি সমস্য সংক্রান্ত গণশুনানি
মো. মুজিবুর রহমান ঃ
গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলার তুমুলিয়া ইউনিয়নের উত্তর সোম সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কক্ষে মিউটেশন ও জমি সংক্রান্ত বিরোধ সমস্যা সমাধান, সাধারণ মানুষের অধিকার বিষয় জানাতে ও সমস্য সমাধানের লক্ষে ”ভুমি সংক্রান্ত যেকোন সমস্যায় কথা বলুন আপনার এসি ল্যান্ড এর সাথে গণশুনানি“ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে তুমুলিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আবু বকর বাক্কুর সভাপতিত্বে গণশুনানিতে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) শাহিনা আক্তার, সার্ভেয়ার আব্দুল আলিম হোসেন, রোকন উজ্জামন, ইউপি সদস্য আজহার উদ্দিন। এ সময় উপস্থিত ভুক্তভোগীরা তাদের নানাবিধ সমস্যা তুলে ধরেন। পর্যায়ক্রমে তাৎক্ষনিক ভাবে অনেকের সমস্যা সমাধান করেন, যাদের অতিরিক্ত সমস্যা তাদের আগামী সোম/বুধবার সহকারী কমিশনার কার্যালয়ে উপস্থিত হতে বলেন। এসময় গণশুনানিতে উপস্থিত ভুক্তভোগীরা হয়রানিসহ বিভিন্ন ক্ষোভ প্রকাশ করে তাদের সমস্যা তুলে ধরেন, একাধিক ভুক্তভোগী অভিযোগ করে বলেন, তুমুলিয়া ভুমি অফিসের লোকজন ও দালালদের মাধ্যমে গোপনে মিউটেশন কাজ করা হচ্ছে।

এ সময় সহকারী কমিশনার (ভূমি) শাহিনা আক্তার বলেন-এসি ল্যান্ড অফিস ব্যাতিত কোন নামজারি জমাভাগ জমা দেবেন না। এতে করে বিভিন্ন কারন দেখিয়ে সময়মত আপনার মিউটেশন জমা না দেয়ার কারনে, আমার অফিসে এসে বলেন ৩/৪ মাস হয়েগেল এখনো মিউটেশন পেলাম না ইত্যাদি।

তিনি বলেন, আমাদের সম্পত্তি না দিয়ে ওয়ারীশগন জমি নিয়েগেছেন বা বিক্রি করেছেন এমন হলে ভুক্তভোগীদের মিসকেস করতে পরামর্শ প্রদান করেন। পরে নামজারী জমা ভাগ ও প্রয়োজনীয় সমস্যা সমাধানে উপজেলা ভূমি অফিসে সরাসরি যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে। তিনি বলেন, সাধারণ মানুষ যেন খাজনা খারিজ সম্পর্কে আমার সাথে যোগাযোগ করতে পারে। সবায় যেন নিজের অধিকার বুঝতে পারে।

এ সময় উপস্থিত সাংবাদিক বলেন, বর্তমানে প্রচুর মিসকেস জমা হয়েছে, একটি তারিখ হইতে অন্যটির তারিখ কমপক্ষে ২/৩ মাস পরে হয় এতেকরে আরো জটিলতা বড়বে কিনা ? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, মিসকে অনেক হয়েছে কথাটি যেমন সত্যি, তেমনি ছোট খাটো কোন সমস্য থাকলে সর্ট টাইমে তা সমাধান করি। আমি প্রতিদিন এ বিষয়ে অতিরিক্ত সময় দিয়ে থাকি, যেমন কাজ করতে করতে রাত্র ৮/৯ টা বেজে যায়। আমি চাই এলাকার মানুষ যেন মিসকেসের মাধ্যমে সঠিক রায় পান। পরে গনশুনানির বিষয়ে তিনি আরো বলেন এভাবে পর্যায়ক্রমে প্রতিটি ইউনিয়নে সাধারণ মানুষের সাথে গণশুনানি করা হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ