সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ০৫:৩৯ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ

কালীগঞ্জে থানায় পর পর ৬ অভিযোগেও কোন ফায়দা হয়নি অসহায় খ্রীস্টান পরিবারের

রিপোটারের নাম / ৫৭ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ৩০ জুলাই, ২০২১

কালীগঞ্জে থানায় পর পর ৬ অভিযোগেও কোন ফায়দা হয়নি অসহায় খ্রীস্টান পরিবারের

কালীগঞ্জ(প্রতিনিধ) গাজীপুর :

গাজীপুরের কালীগঞ্জে একমাত্র খ্রীস্টান পরিবারের উপরে নির্যাতনের বিরুদ্ধে থানায় পর পর ৬ অভিযোগ দায়ের করেও কোন ফায়দা হয়নি বলে অভিযোগ করেছে অসহায় পরিবার। কেবল আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে বলে দাবি করেছেন ভুক্তভোগীরা।

বিভিন্ন মামলার বিবরনে জানা যায়, স্বামীকে মারধর, ছেলেকে মারধর, মেয়ের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানী, কোনটিরও কিনারা দেখতে পায়নি করান সুজাপুর এলাকার ছোট্ট পাড়ার এক মাত্র খ্রীস্টান পরিবারটি। ইউপি সদস্য অরুন গমেজ জানায় যাতায়াতের রাস্তাটি সম্পুর্ণটা সরকারী ও জোত জমির উপর দিয়ে সবাই আসা যাওয়া করবে বাধা দিবে কেন? যুবককে চর মারায় সেদিনের ঝগড়াটি বাধে। তবে বিষয়টি নিয়ে সমাধান চায় স্থানীয় নাগরী ১ নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য অরুন গমেজ। মারধরের অভিযোগ রয়েছে ওই ১নং ওয়ার্ড সদস্যর বিরুদ্ধেও।

১,২,৩ নং সংরক্ষিত আসনের মহিলা সদস্য মর্জিনা বেগম বলেন, ওদের উপর নির্যাতন হচ্ছে সত্য, আমি বলেছি কাচাঁ সড়কটি পাকা করে দিলে গরুনিয়ে যাবে। কিন্ত তারা মানতে রাজি না। সবাই চলাচলের জন্য সরকারী হালটের পাশ দিয়ে নিজেদের টাকায় সড়কটি তৈরী করে অতুল ক্লেমেটে কস্তা, বিষয়টি একতরফা হয়ে যাচ্ছে, প্রশাসনের হস্তোক্ষেপ দরকার।

ঘটনাসূত্রে জানা যায়, জমি সংক্রান্ত জেরধরে আজ প্রায় ৬ বছর যারত ধাওয়া মারধর ও হত্যার চেষ্টা করে আসছে একটি সংঘবদ্ধ মাদক বিক্রেতা দল। অত্র পাড়ায় একমাত্র খ্রীস্টান সম্প্রদায় থাকায় যাচ্ছেতাই আচরণ ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ড করে আসছে। থানায় অভিযোগ দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে মনে হয় অত্র গন্ডিতে তাদের চেয়ে ভালো মানুষ পাওয়া যাবে না। পুলিশ চলে গেলে আবরো যেই পুরাতন চেহারা স্টিম রুলার চালয় অসহায় পরিবাদের উপর।

অতুল ক্লেমেটে কস্তা বলে, আমার নিজস্ব অর্থায়নে সরকারী হালটের পাশ দিয়ে মাটি ভরাট করেরাস্তাটি নির্মাণ করেছি: সড়কটি নিয়ে বেশ কয়েক বছর যাবৎ প্রতিবেশী তীব্র চন্দ্র মন্ডল, অপু চন্দ্র মন্ডল গংদের সাথে বিবাদ চলে আসছে।

লিখিত অভিযোগে জানা যায়, গত ২৮ ফেব্রæয়ারী ২০১৬ ইং মাটির রাস্তাটি মাটি ভরাট করার সময় অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করে লোকজন নিয়ে মারতে আসে সত্যরঞ্জন, অতুল কস্তা নিজে থানায় অভিযোগ দেয়। গত ১২ জুলাই ১৮ইং প্রতিবেশীর গাছের ডালা বাড়ির উপর আসায় কাটতে বলায় সত্য চন্দ্র মন্ডলগং বাড়িতে হামলা চালায়, থানায় অভিযোগ দায়ের হয়, ২৩ জানুয়ারী গেটের উপর কারেন্টের তার পরে থাকায় সরাতে বল্লে অশ্লিল ভাষায় গালমন্দ ও মারধার করায় থানায় অভিযোগ দায়ের হয়, গত ১ জুলাই ২১ইং সন্ধ্যায় গরুনিয়ে যাওয়ার সময় বাধা দেয়ায় অতুল কস্তাকে মারধর করায় থানায় অভিযোগ দায়ের হয়, গত ৬ মার্চ সরকারী হালট থেকে মাটি কাঁটা বাধা দেওয়ায় মারধর কওে থানয় অভিযোগ দেয়া হয়, ৭ জুলাই আবরো গালিগালাজ ও মারধর করে তার অভিযোগ দেয়া হয়। গত ১১ জুলাই ২১ সালে ভাঙ্গা সড়কে গরু নিয়ে যাবার সময় বাধা দিলে গালিগালাজ ও মারধর করে অভিযোগ দেয়। অবশেষে গত ২৪ জুলাই হত্যার হুমকিতে শিউলি ইমেল্ডারিবেরু নিজে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

অসহায় পরিবারটি এদেশের একজন সাধারণ নাগরীক হিসেবে বসবাস করতে পুলিশ বাহিনীর উর্ধতণ কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ পুর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ জানান এলাকাবাসী।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ