সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ০৫:১৭ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ

এবিএল এমিগ্রো বলছে যুবকের আত্ম:হত্যা, পিএম রিপোর্টে হত্যা

রিপোটারের নাম / ২৯ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২১ জানুয়ারী, ২০২২

এবিএল এমিগ্রো বলছে যুবকের আত্ম:হত্যা, পিএম রিপোর্টে হত্যা

কালীগঞ্জ(গাজীপুর)প্রতিনিধি :

গাজীপুরের কালীগঞ্জে বাহদুশাদী ইউনিয়নের খলাপাড়ায় এবিএল এমিগো লিঃ এ সুইং শাখায় ইন্টারভিউ দিতে গিয়ে সুমন দেবনাথ নামে এক যুবকের রহস্যজনক মৃত্যুর ঘটনায় ঘটে। সে জামালপুর ইউনিয়নের কল্পাটুয়া গ্রামের হরিলাল দেবনাথের ছেলে। এ ঘটনায় মামলা নেয়নি থানা পুলিশ। পোস্ট মর্টেমে রক্তক্ষরনের কারনে মৃত্যু কথা উঠে এলো। ময়না তদন্তর পর গাজীপুরে বিজ্ঞ আদারতে ৫ জনকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

ঘটনাটি ঘটেছে গত ২৩ নভেম্বর মঙ্গলবার ২০২১ ইং সকালে উপজেলার বাহাদুশাদী ইউনিয়নের ক্ষলাপাড়া এ.বি.এল এমিগ্রো ফ্যাক্টরীর ভেতরে।

জানা যায়, সুমনকে উচ্চ বেতনে চাকুরী দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে ধীরেন্দ্র দেবনাথ সুমন এর বাবার কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়। গত ২৩ নভেম্বর ২০২১ ইং সকাল সাড়ে ১০টার দিকে সুমন দেবনাথ ইন্টারভিউ দিতে খলাপাড়া এবিএল কারখানায় যান। সেখানে ভেতরে গিয়ে ইন্টারভিউ দিয়ে অকৃতকার্য হলে চাকুরীর জন্য দালালেন মাধমে দেয়া ৫০ হাজার টাকা ফেরৎ চায়। পরে তাকে উপড়ে নিয়ে বেদম প্রহার করলে সুমন অচেতন হয়ে মারা যায়। উপায়ান্তর না দেখে উপর থেকে মৃতদেহটি নীচে ফেলে দেয়।

এবিএল কোম্পানির এডমিন মাহমুদুল হাসান, মেডিকেল এসিসটেন্ট মো. হাবিবুর রহমান, মো. ইসরাফিল খান, জান্নাত আরা ট্রেড কর্মচারী, ও ধিরেন্দ্র বেনাথকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন। একটি নাটক তৈরী করে সুমনকে ওপর থেকে নিচে ফেলে দেয়।
যুবকের মৃতদেহটি ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয় গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মর্গে পাঠানো হয়।

পরে ময়না তদন্তে প্রতিবেদনে হুবহু তুলে ধরা হইল, চিকিৎসক ”আমি আমার মতে উপরে উল্লিখিত বুকে আঘাতের ফলে রক্তক্ষরণের শকের কারণে মৃত্যু হয়েছে। যেখানে মৃতদেহের আগে। ময়না তদন্তের সময় আঘাত। মৃত্যু উচ্চতা থেকে আত্মঘাতী পতনের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়। অধিকতর তদন্তের মাধ্যমে তদন্তকারী কর্তৃপক্ষের দ্বারা মৃত্যুর পদ্ধতি সনাক্ত করা উচিত


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ